স্কুল-প্রতিষ্ঠানে খোঁজখবর নেওয়াসহ তারাকান্দায় ইউএনও’র সপ্তাহব্যাপী ব্যাপক কর্মতৎপরতা 

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলায় শিক্ষার মানোন্নয়নে কাজ করছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজাবে রহমত। তিনি জানেন-যে জাতি যত শিক্ষিত সে জাতি ততই উন্নত,তাই তারাকান্দা উপজেলাবাসীর ভাগ্যোন্নয়নের ক্ষেত্রে শিক্ষার কোন বিকল্প নেই।শুধু শিক্ষাই নয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার উপজেলায় সকল সেক্টরকে গুরুত্ব দিয়ে সপ্তাহব্যাপী বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে সকল ধরনের সেবাকে জনকল্যাণে পৌছে দিতে কাজ করছেন।

মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলোতে পরিদর্শনে গিয়ে  শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদেরকে যেকোনো বিষয়ে সহযোগিতা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন এবং তা বাস্তবায়ন করেন।  শিক্ষার্থীরা  শুধু লেখাপড়া না,যেন গানও শিখতে পারে সে ব্যাপারেও তিনি সহযোগীতা দিয়ে থাকেন।বিভিন্ন স্কুল গুলোতে শ্রেণিকক্ষের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে নতুন ভবন নির্মাণ করারও ব্যবস্থা নেন তিনি।

সেই ধারাবাহিকতায়  উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের পারুলীতলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার  মিজাবে রহমত, একই দিনে তিনি পারুলীতলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবনের ছাদ ঢালায় কাজের শুভ উদ্বোধন করেন। এসময় উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী, উপজেলা শিক্ষা অফিসার, বিদ্যালয়ের সভাপতি, প্রধান শিক্ষক, ঠিকাদারসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গীা উপস্থিত ছিলেন।

 বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি  বলেন, তারাকান্দা উপজেলার শিক্ষাবান্ধব উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজাবে রহমত স্যারের সার্বিক সহযোগীতায়  ‘আমরা স্কুলটিকে মডেল হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করছি,তিনি ইউএনও’র পাশাপাশি  শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সহযোগীতা চান।

এ কথার সূত্র ধরেই  ইউএনও মিজাবে রহমত  উপস্থিত অভিভাবক, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, ‘বিদ্যালয়টিকে মডেল হিসেবে গড়ে তুলতে সরকারি সব সহযোগিতা করা হবে। আপনারা যেকোনো সমস্যা আমাকে জানাবেন। আমি অবশ্যই আপনাদের পাশে থাকবো ইনশাআল্লাহ।

 সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন, ‘ইউএনও মহোদয় শিক্ষার্থীবান্ধব। প্রায়ই স্কুলের খোঁজ খবর নেন।প্রায়ই তিনি হঠাৎ করে শিক্ষার্থীদের খোজ নেন। উনার কার্যক্রমে আমরা  খুব উৎসাহিত হই।’

ইউএনও মিজাবে রহমত বলেন, ‘প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার মান বাড়লেই শিক্ষার্থীরা ভবিষ্যতের প্রতিযোগিতাময় বিশ্বে নিজেদেরকে গড়ে তুলতে পারবে। একজন শিক্ষার্থীর মেরুদণ্ড তৈরি হয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। তাই শুধু লেখাপড়াই নয়, সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডেও শিক্ষার্থীরা সম্পৃক্ত হবে। সেই সুযোগটা আমাদেরকেই তৈরি করে দিতে হবে।’

একই সপ্তাহে ইউএনও  মিজাবে রহমত উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের সিএ  তাজুল ইসলামের মা ইন্তেকাল করায় উনার জানাযায় শরীক হয়ে মরহুমার প্রতি মাগফেরাত কামনা ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করতে পাশ্ববর্তী  সদর উপজেলার মীরকান্দাপাড়া গ্রামের বাড়িতে উপস্থিত হন।  এসময় তারাকান্দা উপজেলার বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মোতালেব ও পরিবারের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

তাছাড়া  জাতির সূর্য সন্তান তারাকান্দা উপজেলার কামারগাঁও ইউনিয়নের  কামারগাঁও গ্রামের বীরমুক্তিযোদ্ধা হাছেন আলী’র ও উপজেলার গালাগাঁও ইউনিয়নের গাবরগাতী গ্রামের বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন তুতা’র জানাযা পরবর্তী গার্ড অব অনার প্রদান করেন

এবং জেলা পর্যায়ে ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা-২০২২ এ তারাকান্দা উপজেলা থেকে অংশগ্রহনকারী কামারগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ তৃতীয় স্থান অর্জন করায় কামারগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের সচিবসহ তারাকন্দা, বানিহালা, কাকনী, গালাগাঁও, বালিখা, ঢাকুয়া, রামপুর, কামারিয়া, বিসকা ইউনিয়ন পরিষদের সচিবদের উপজেলা প্রশাসন, তারাকান্দা’র পক্ষ থেকে অভিনন্দন জানাতে পরিষদ কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।