সারাদেশে নির্বাচনী সহিংসতায় আরো ১৪ জন আহত

আজ রবিবার সকাল আটটায় সারাদেশে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। এরপরই বিভিন্ন জায়গা থেকে সংঘর্ষের খবর আসতে থাকে। দৈনিক ইত্তেফাকের প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্যমতে, চট্টগ্রাম, কুমিল্লা ও রাজশাহীতে দুইজন করে এবং নোয়াখালী, গাজীপুর, রাঙামাটি, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়, কক্সবাজার, নরসিংদী, নাটোর ও বগুড়ায় একজন করে নিহত হয়েছেন।

চট্টগ্রাম অফিস: পটিয়া ও বাঁশখালীতে সহিংসতায় দুইজন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন— আবু সাদেক পটিয়ার ও আহমেদ কবির।

জানা গেছে, পটিয়ার ঝিরি এলাকায় আওয়ামী লীগ-বিএনপির মধ্যে সংঘর্ষে আবু সাদেক নামে এক যুবক নিহত হন। তিনি ইসলামী ছাত্রসেনার সদস্য বলে দাবি করা হয়েছে। সকাল ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

অন্যদিকে বাঁশখালিতে ভোটকেন্দ্র দখল করাকে কেন্দ্র করে গুলিবিনিময়ের ঘটনায় এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। রবিবার ভোর আড়াইটার দিকে কাথারিয়া ইউনিয়নের বড়ইতলি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ জানান, নিহত ব্যক্তি জামায়াতের সমর্থক।

কুমিল্লা প্রতিনিধি: কুমিল্লা-১০ (সদর দক্ষিণ, লালমাই, নাঙ্গলকোট) সংসদীয় আসনের নাঙ্গলকোট উপজেলায় বাচ্চু মিয়া (৫০) নামে এক বিএনপি নেতাকে হেলমেটধারী একদল দুর্বৃত্ত হকিস্টিক দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে জানা গেছে। রবিবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ওই উপজেলার বটতলী ইউনিয়নের মোরগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের অদূরে এ ঘটনা ঘটে।

এছাড়াও চান্দিনা উপজেলায় ‘পুলিশের গুলিতে’ মজিব (৩৫) নামে একজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আরো দুইজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। রবিবার বেলা ১১টার দিকে পৌর এলাকার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম বেলাশহর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মজিবুর রহমান কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার লাজৈর গ্রামের সুজাত আলীর ছেলে। তিনি চান্দিনার পশ্চিম বেলাশহর এলাকার ভাড়াটিয়া বসবাস করার সুবাদে ওই এলাকার ভোটার। তিনি চান্দিনার একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন।

কাউখালি (রাঙামাটি) সংবাদদাতা: জেলার কাউখালিতে আওয়ামী লীগ-বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষে মো. বাছির উদ্দিন (৩৬) নামে এক যুবলীগ কর্মী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরো ১০ জন আহত হয়েছেন। রবিবার সকালে কাউখালি উপজেলার ঘাগড়া ইউনিয়নের রাঙ্গীপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মো. বাছির উদ্দিন কাউখালি উপজেলার ঘাগড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি কাশখালী গ্রামের আবদুর রশিদের ছেলে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মিনহাজুর রহমান জানান, সকালে রাঙ্গীপাড়া এলাকায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়। এতে বাছিরসহ ১১ জন আহত হন। বাছিরকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিত্সক মৃত ঘোষণা করেন। আহত অন্যদের কাউখালি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

রাজশাহী অফিস: মোহনপুর উপজেলার জাহানাবাদ ইউনিয়নের পাইকপাড়া ভোটকেন্দ্রে বিএনপির সঙ্গে সংঘর্ষে মেরাজুল (২৫) নামে এক আওয়ামী লীগ কর্মী নিহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। আজ রবিবার দুপুর ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে ভোর ছয়টা থেকে বিএনপির কর্মীরা সেখানে অবস্থান করছিলেন। আওয়ামী লীগের কর্মীরা তাদের বাধা দিতে গেলে সংঘষের্র সূচনা হয়। সংঘষের্র মধ্যে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মেরাজুল ঘটনাস্থলেই নিহত হন। এ খবর নিশ্চিত করেছেন মোহনপুর উপজেলার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হোসেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নির্বাচনী সহিংসতায় একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত এবং আহত হয়েছেন পুলিশসহ কমপক্ষে ১০জন। নিহত ইসরাইল (১৯), রাজঘর গ্রামের সায়েদুল ইসলামের পুত্র। পেশায় রাজমিস্ত্রী। সকালে সদর উপজেলার নাটাই উত্তর ইউনিয়নের রাজঘর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও মহাজোট প্রার্থী র.আ.ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী রাজঘর ভোট কেন্দ্র পরিদর্শনে গেলে আওয়ামীলীগ-বিএনপির মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। এক পর্যায়ে স্থানসীয়রা তার গাড়িতে হামলা চালিয়ে গাড়ির পেছনের কাঁচা ভেঙ্গে ফেলে। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ লাটিপেটা ও গুলি নিক্ষেপ করেন। এসময় ওই যুবক নিহত হন। এতে ইসরাইলসহ চারজন গুলিবিদ্ধ হয়। হাসপাতালে আনার পর কর্তব্যরত চিকিত্সক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া ও কাহালু সংবাদদাতা: বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনের কাহালু উপজেলার পল্লীতে প্রতিপক্ষের হামলায় আজিজুল হক(৩২) নামে এক আওয়ামী লীগ কর্মী নিহত ও একজন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জন্য আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতাকর্মীরা বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীদের দায়ী করেছে।

আজিজুল হক কাহালু উপজেলার বাগইল দক্ষিণ পাড়া গ্রামের হায়দার আলীর পুত্র। আহত নাজমুল হুদা (৩৫) কাহালু উপজেলার পাইকড় ইউনিয়নের ৩নং ওয়াডের্র ইউপি সদস্য ও একই গ্রামের ছোলেমান আলীর পুত্র। নাজমুল হুদা বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, আজিজুল হক ও নাজমুল হুদা তাদের লোকজন নিয়ে বাগইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিতে যাবার সময় বিএনপি-জামায়াতের লোকজন তাদের উপর হামলা চালিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আজিজুল ও নাজমুল হুদাকে বগুড়ার টিএমএসএস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে আজিজুল মারা যায়। পরে নাজমুল হুদাকে টিএমএসএস থেকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। কাহালু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শওকত কবির হামলায় একজনের মৃত্যু ও একজনের আহত হওয়ার কথা স্বীকার করেছেন।

চকরিয়া (কক্সবাজার) সংবাদদাতা: উপজেলা রাজাখালী মাতবর পাড়ায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে সংর্ঘষে আবদুল্লাহ আল ফারুক (২৫) নামে এক ছাত্রলীগ কর্মী নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরো দুইজন। রবিবার সকাল ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ছাত্রলীগ কর্মী ফারুক রাজাখালী উলুদিয়া পাড়ার আবুল কালামের পুত্র। পেকুয়া থানার ওসি জাকির হোসেন ভূঁইয়া বলেন, রাজাখালী মাতবর পাড়া ভোট কেন্দ্রের বাইরে বিএনপি-আওয়ামী লীগ সংঘর্ষে একজন নিহত ও দুইজন গুরুতর আহত হন।

নরসিংদী প্রতিনিধি: জেলার শিবপুরের কুন্দারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে আওয়ামী লীগের দুইপক্ষের সংঘর্ষে নৌকাপ্রতীকের এজেন্ট মিলন মিয়া (৫৫) নামে একজন নিহত হয়েছেন। আজ রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জহিরুল হক ভূঁইয়া বেলা ১১টার দিকে ওই ভোটকেন্দ্র পরিদর্শনে যান। এ সময় তিনি তাঁর কর্মীদের ব্যালটে নৌকা প্রতীকে সিল মারতে বলেন। এ সময় ওই আসনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম মোল্লাও ওই কেন্দ্র যান। দু’পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে ঘটনাস্থল থেকে মিলন মিয়ার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শফিউর রহমান এ খবর নিশ্চিত করেছেন।

নাটোর প্রতিনিধি: জেলার নলডাঙ্গা উপজেলার সমসখলসী গ্রামে ভোট দেয়াকে কেন্দ্র করে ভাতিজার ছুরিকাঘাতে চাচা হোসেন আলী (৫৫) নিহত হয়েছেন। রবিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সমসখলসী ভোট কেন্দ্রের কাছে এ ঘটনাটি ঘটে।

নিহত হোসেন আলী সমসখলসী গ্রামের ওয়ায়েস উদ্দিনের ছেলে। প্রত্যক্ষদর্শী নিহত হোসেন আলীর স্ত্রী ইয়ারজান জানান, ভোট দেয়া না দেয়া নিয়ে চাচা-ভাতিজার মধ্যে মানসিক দ্বন্দ্ব ছিল। সকালে হোসেন আলী ভোট দিয়ে ফিরছিলেন। পথিমধ্যে ভাতিজা রতন তার ওপর ধারালো ছুরি নিয়ে হামলা চালায়। এতে হোসেন আলী মারাত্মকভাবে আহত হলে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ব্যাপারে নলডাঙ্গা থানার ওসি মো. শফিকুর রহমান জানান, বিষয়টি সঠিক তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তানোর (রাজশাহী) সংবাদদাতা: তানোর উপজেলার মোহাম্মদপুর স্কুল কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার সময় মোদাচ্ছের আলী (৪৫) নামে একজন হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা গেছেন।

এ খবর নিশ্চিত করে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন জানান, মৃত মোদাচ্ছের আওয়ামী লীগের একজন কর্মী।

গাজীপুর প্রতিনিধি: জেলার হারিনালে লিয়াকত নামের এক যুবলীগ নেতা নিহত হয়েছেন। রবিবার দুপুর দেড়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

ইত্তেফাক