সঞ্জীবনের কেন্দ্রীয় কমিটির পূর্ণাঙ্গ ও কর্ম পরিকল্পনা প্রকাশ

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বিগত ০৯ মার্চ, ২০১৯ ইং (শনিবার) ফাহিম আহম্মেদ মন্ডল-কে সভাপতি এবং নূর হোসেন হৃদয়-কে সাধারণ সম্পাদক নিযুক্ত করে সঞ্জীবন, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পর্ষদের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। এর প্রায় এক মাস পর বাংলা নববর্ষের প্রাক্কালে কমিটি পূর্ণাঙ্গ করলেন তাঁরা। কমিটি পূর্ণাঙ্গ করণের পাশাপাশি পরবর্তী এক বছরের জন্য সংগঠনের কর্ম পরিকল্পনাও প্রকাশ করা হয়েছে।

১৪ এপ্রিল, ২০১৯ ইং (রবিবার) সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আগামী এক বছরের জন্য ৪৫ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা প্রকাশ করা হয়। তালিকাটি নিম্নরূপ;

সভাপতিঃ ফাহিম আহম্মেদ মন্ডল (জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়)
সাধারণ সম্পাদকঃ নূর হোসেন হৃদয় (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়)
প্রধান, মানব সম্পদ উন্নয়ন ও কল্যাণ দপ্তরঃ আব্দুল্লাহ আল নোমান (জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়)
প্রধান, শিক্ষা দপ্তরঃ নুসরাত রহমান মীম (জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়)
প্রধান, পরিবেশ, দুর্যোগ ও সমাজকল্যাণ দপ্তরঃ আশিকুর রহমান তুহিন (পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়)
প্রধান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি দপ্তরঃ এসএমকে ইশতিয়াক (বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়)
মহাব্যবস্থাপক, স্বাস্থ্য ও সেবা প্রকল্পঃ দৌলত আহম্মেদ শাকিল (ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ)

যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক (০১) – এমএমডিএইচ সিয়াম (জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়)
যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক (০২)- সাজিবুল আনাম পরাগ (শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়)

অর্থ ও অনুদান সম্পাদকঃ সাদমান সানিয়াত জিসান (ডেফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, আশুলিয়া)
সাংগঠনিক সম্পাদক (০১) – মইনুল হাসান (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়)
সাংগঠনিক সম্পাদক (০২) – রাকিবুল ইসলাম বাবু (ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি)
সাংগঠনিক সম্পাদক (০৩) – জাহিদ হাসান আল আমিন (বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়)

মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ সম্পাদকঃ আমিনুল ইসলাম (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়)
শিক্ষা ও পাঠচক্র সম্পাদকঃ নুর-ই-জান্নাত মিতু (জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়)
গ্রন্থাগার ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আফসানা মিমি (জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়)
স্কুল ও কলেজ ছাত্র বিষয়ক সম্পাদকঃ খালিদ সাইফুল্লাহ নোমান (নটর ডেম কলেজ, ময়মনসিংহ)
বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদকঃ ইফাত জাহান স্বর্ণা (শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়)
সমাজকল্যাণ সম্পাদকঃ মোঃ শাখাওয়াত হোসেন শাকিল (পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়)
দুর্যোগ ও ত্রাণ সম্পাদকঃ হাফিজুর রহমান আহাদ (পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়)
ভূমিসম্পদ ও আবাসন সম্পাদকঃ মনজুর মোর্শেদ ফয়সাল (জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়)
ক্রীড়া ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদকঃ আরাফাত রহমান সরকার (জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়)
নারী ও শিশু কল্যাণ সম্পাদকঃ রোজিনা আক্তার (ইডেন মহিলা কলেজ, ঢাকা)
কর্ম ও পরিকল্পনা সম্পাদকঃ ইমরুল কায়েস (মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়)
কৃষি গবেষণা ও উন্নয়ন সম্পাদকঃ আবু জাফর শেখ সাদী (বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়).
গণসংযোগ সম্পাদকঃ আব্দুল আহাদ নাফিস (জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়)
প্রচার সম্পাদকঃ তারেক আহম্মেদ (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়)
সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদকঃ ফাহমিদা আফরিন সিথি (জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়)
আইন বিষয়ক সম্পাদকঃ রাকিবুল হাসান মুবিন (ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি, ঢাকা)
প্রাণী সম্পদ সংরক্ষণ ও উন্নয়ন সম্পাদকঃ রাকিবুল ইসলাম রনি (রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়)
দপ্তর সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) – এমএমডিএইচ সিয়াম (জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়)
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদকঃ শুভজিত বিন (শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়)
অভ্যর্থনা ও আপ্যায়ন সম্পাদকঃ সানজিদা খানম ঐশ্বর্য (ময়মনসিংহ সরকারী কলেজ)
শিক্ষা ও পাঠচক্র সহ সম্পাদকঃ নিশাদ রহমান মীম (জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়)
কৃষি গবেষণা ও উন্নয়ন সহ সম্পাদকঃ রাহাত নিয়াজ (পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়)
দুর্যোগ ও ত্রাণ সহ সম্পাদকঃ শাফিক আহম্মেদ (পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়)
ক্রীড়া ও সংস্কৃতি বিষয়ক উপ সম্পাদকঃ আল আমিন (শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজ, ময়মনসিংহ)
প্রচার সহ-সম্পাদকঃ মেহেদী হাসান রানা (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়)
প্রচার সহ-সম্পাদকঃ আদীব রাফি, আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
প্রচার সহ-সম্পাদকঃ এসএম সাদিকুর রহমান সাদিক (স্টেট ইউনিভার্সিটি, ঢাকা)
প্রাণী সম্পদ সংরক্ষণ ও উন্নয়ন সহ সম্পাদকঃ সাদমান সাকিব অয়ন (শেরে-ই-বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়)
কার্যনির্বাহী সদস্য (০১) – মিজানুর রহমান শুভ (জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়)
কার্যনির্বাহী সদস্য (০২) – ইফফাত জাহান (ডেফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, ধানমন্ডী)
কার্যনির্বাহী সদস্য (০৩) – আয়মান রশীদ ঐশী (আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ)

কমিটির ব্যাপারে জানতে চাইলে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক নূর হোসেন হৃদয় বলেন, “আমাদের সকল শাখার সকল কর্মীদের জন্য এই কেন্দ্রীয় কমিটি নববর্ষের উপহার স্বরূপ। যথাসম্ভব কম কিন্তু যোগ্য সদস্যদের কমিটিতে রাখার চেষ্টা করেছি। পাশাপাশি আমাদের কার্য পরিকল্পনাও প্রণীত হয়েছে। সকলের দোয়া ও সহযোগীতা কামনা করছি যেনো পরবর্তী এক বছর আমরা খুব ভালোভাবে এগোতে পারি।”

পরবর্তী এক (০১) বছরের জন্য সঞ্জীবনের কর্ম পরিকল্পনা –
১। সবুজ বাংলাদেশ ও সবুজ বিশ্ব বাস্তবায়নের উদ্দেশ্যে সঞ্জীবনের প্রতিটি শাখায় “টেকসই বনায়ন বা সাস্টেইনেবল ফরেস্ট” তৈরী করতে পদক্ষেপ নেয়া হবে এবং বাস্তবায়ন করা হবে।
২। সঞ্জীবনের আওতাধীন সকল তৃণমূল শাখায় (উপজেলা, ইউনিয়ন) দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্যে “শিক্ষাবৃত্তি” চালু করা এবং নিয়মিত অডিটের মাধ্যমে তা পর্যবেক্ষণ করা।
৩। সঞ্জীবনের প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ সহায়তায় অত্র প্রতিষ্ঠানের আওতাধীন প্রত্যেক শাখা অঞ্চলে “ব্লাড জোন বা ব্লাড হাব” তৈরী করা।
৪। সঞ্জীবনের প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ সহায়তায় অত্র প্রতিষ্ঠানের আওতাধীন প্রত্যেক শাখা অঞ্চলে “উন্মুক্ত পাঠাগার বা পাবলিক লাইব্রেরী” তৈরী করা।
৫। তৃণমূল পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রতিযোগিতা তৈরী ও সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রত্যেক শাখা অঞ্চলে বিতর্ক প্রতিযোগীতা ও কুইজ প্রতিযোগীতা আয়োজন করা এবং নিয়মিত পুরস্কার বিতরণী পালন করা।
৬। সঞ্জীবন, স্বাস্থ্য ও সেবা প্রকল্পের আওতাধীন মেডিকেল টীম সদস্যদের তত্ত্বাবধানে প্রতি মাসে একটি করে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ক্যাম্পেইন, ব্লাড ক্যাম্পেইন সহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া।
৭। সাধারণ্যে গণসচেতনতা ও সাবধানতা বৃদ্ধির জন্যে বিভিন্ন টপিক বা সমসাময়িক ইস্যুর উপর ওপেন ব্রিফিং, পাবলিক লেকচার, আত্মরক্ষা প্রশিক্ষণ কিংবা ওয়ার্কশপ আয়োজন করা।
৮। সঞ্জীবনের ব্যানারে আইটি প্রশিক্ষণ বা সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন কোর্স পরিচালনা এবং আইটি বিষয়ক বিভিন্ন সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন।
৯। প্রতি মাসে নিয়মিত প্রকাশনা আহ্বান ও আয়োজন করা।
১০। বাঙালী সংস্কৃতির মূল্যবোধ ও নিয়মিত শরীর চর্চার গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা সর্ব ক্ষেত্রে ছড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যে সঞ্জীবনের প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ সহায়তায় বিভিন্ন সাংস্কৃতিক আয়োজন কিংবা খেলাধুলার আসর আয়োজন সম্পন্ন করা।