ময়মনসিংহ সার্কিট হাউজ মাঠের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও বর্ণনা

ময়মনসিংহ সার্কিট হাউজ
ময়মনসিংহ সার্কিট হাউজ

শামিম ইশতিয়াকঃ  ধীর ঢেউয়ের ব্রম্মপুত্রের তীরে অবস্থিত শিক্ষা ও সংস্কৃতির তীর্থভূমি ময়মনসিংহ, বিভাগীয় এই শহরে রয়েছে অনেক ইতিহাস ঐতিহ্য, রয়েছে দর্শনীয় অনেক স্থান, ঐতিহাসিক অনেক স্থাপনা ও নিদর্শন, যাদের রয়েছে স্বতন্ত্র ইতিহাস ঐতিহ্য ,তেমনি একটি স্থান হলো ময়মনসিংহের সার্কিট হাউজ মাঠ ও সার্কিট হাউজ।

ব্রম্মপুত্রের ঠিক পাশেই শহরের আবুল মনসুর সড়কের ক্রীড়াপল্লীর মুখোমুখি সবুজের এক চোখ ধাধানো গালিচা বিছিয়ে নিজেকে প্রসারিত করে দিয়েছে সার্কিট হাউজ মাঠ, শহরের টাউনহল হতে পশ্চিম পাশেই দুটি রাস্তায় হাটলেই সামনে আসে মাঠটি, মাঠটির প্রাক ইতিহাস সম্পর্কে জানা যায় যে ময়মনসিংহ পৌরসভা প্রতিষ্টিত হওয়ার পর থেকেই সার্কিট হাউজকে এক পাশে নিয়ে শুরু হয় এই মাঠের গোড়াপত্তন, কথিত আছে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর থেকেই এ মাঠে খেলা শুরু হয়, সেই থেকেই এই মাঠে বিভাগীয় ভাবে লিগের খেলার যাত্রা শুরু, এখানে খেলতে আসেন জাতীয় দলের প্রায় অনেক সাবেক খেলোয়াড় সহ বর্তমান খেলোয়াড়, এছাড়াও এই মাঠ থেকেই শৈশব কাটিয়ে বর্তমানে জাতীয় ক্রিকেট দলে আছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ সহ আরো অনেকেই।

সার্কিট হাউজ মাঠটিকে আলাদা করিয়ে বিশেষায়িত করিয়ে দিতে হয়না কারো কাছে, মাঠটি মানেই যেনো ক্রীড়াপ্রেমীদের আড্ডাখানা, মাঠটির পাশেই আবুল মনসুর সড়ক পরিচিত ক্রীড়াপল্লী হিসেবে, মাঠটিকে কেন্দ্র করেই এখানে ঘরে উঠেছে অসংখ্য ক্লাব, যার মাঝে অন্যতম হলো পণ্ডিতপাড়া অ্যাথলেটিকস ক্লাব, মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব, ময়মনসিংহ রাইফেল ক্লাব, অসিত মেমোরিয়াল ক্লাব, ফ্রেন্ডস ইলেভেন ক্লাব, কাউন্টি ক্লাব, শেখ কামাল ক্রিকেট একাডেমি, উদয়ন ক্রীড়া চক্র, পুলিশ স্পোর্টিং ক্লাব, মুকুল ফৌজ অ্যাথলেটিকস ক্লাব, আবাহনী ক্রীড়া চক্র, ময়মনসিংহ ফুটবল একাডেমি ইত্যাদি।

সার্কিট হাউজ মাঠে নিয়মিত এই ক্লাবের সদস্যদের বিভিন্ন খেলার অনুশীলন/চর্চা করানো হয়, এছাড়াও এই মাঠে প্রতিনিয়ত অনুষ্ঠিত হয় ফুটবল, ক্রিকেট, ভলিবল, হকি, কাবাডি খেলা, খেলতে আসে দূর দুরান্ত থেকে অনেক খেলোয়াড়, চলে বিভিন্ন টুর্নামেন্ট, এছাড়াও প্রতি বছর এই মাঠে অনুষ্টিত হয় ময়মনসিংহের বিখ্যাত ঘোড়াদৌড় প্রতিযোগিতা।

খেলাধুলার বাইরেও এই মাঠের রয়েছে রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক সুনাম, ময়মনসিংহের বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক, স্বেচ্ছাসেবী, সাহিত্য, সাংস্কৃতিক সংগঠবের সভা-সমাবেশের জন্য প্রধান স্থান সার্কিট হাউজ মাঠ। রাজনৈতিক ইতিহাসে তাই যেমন এই মাঠের নাম রয়েছে তেমনি সারা বছর খেলাধুলার ক্ষেত্রেও রয়েছে এর অবদান।

সার্কিট হাউজ মাঠের ঠিক পাশেই অবস্থিত সার্কিট হাউজ, লাল দালানের দৃষ্টিনন্দন এই স্থাপনা যেনো মাঠকে দিয়েছে আলাদা সৌন্দর্য, হাউজের পাশেই হরেক ফুলের বাগান যেনো সবুজের মাঝে রঙিন আরেক দুনিয়া, সব মিলিয়ে ক্রীড়াআমুদে মানুষের জন্য মাঠ এবং সার্কিট হাউজ হয়ে উঠে সময় কাটানোর এক অনন্য মাধ্যম।

সার্কিট হাউজে দেখার মত রয়েছে সার্কিট হাউজে রক্ষিত নান্দনিকফ্রেমে বাঁধাই জমিদার আমলের পেইন্টিং, সার্কিট হাউজের বৈঠকখানায় পুরোনো আমলের ঝাড়বাতি, সার্কিট হাউজে রয়েছে আবাসন ব্যবস্থা, এখানে  রয়েছে শাপলা, শিমুল, শিউলি, শালুক, চাঁদনী, চামেলী, পলাশ, বকুল, চম্পা, চেরী নামক রুম, যাতে রয়েছে ভি আই পি, সরকারি/অবসরপ্রাপ্ত, সংস্থা, কর্পোরেশন, স্বায়ত্বস্বাসিত দের জন্য থাকার ব্যাবস্থা, যার মাঝে কিছু রুম এসি, কিছু রুম ননএসি, থাকার পক্রিয়া সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করতে হবে দায়িত্বপ্রাপ্তকর্মকর্তা “নেজারত ডেপুটি কালেক্টর” এর সাথে এছাড়াও অফিসে থাকা ফোন ০৯১ ৬৫৭২৩ ও মোবাইল নাম্বারে ০১৭৩৩৩৭৩৩০৬।

ময়মনসিংহবাসীর কাছে যেমন সার্কিট হাউজ মাঠ ও সার্কিট হাউজ ব্যাপক জনপ্রিয় পাশাপাশি ময়মনসিংহের বাইরে থেকে ঘুরতে আসা মানুষের জন্যেও এটা এক আকর্ষনীয় স্থান, শহরের শোভার সাথে এই মাঠ ও হাউজের নাম এক সূত্রে গাঁথা, প্রাক্তন নাসিরাবাদের ইতিহাস টানতে অস্বীকার করার সুযোগ নেই ময়মনসিংহ নগরীর সার্কিট হাউজ মাঠ ও সার্কিট হাউজের ভূমিকা কে, সব মিলিয়ে এই মাঠ ময়মনসিংহবাসীর ক্রীড়া, সংস্কৃতি, রাজনীতি ও বিনোদনের এক প্রাণ কেন্দ্র, এই মাঠ যেনো ফুলের মাঝে থাকা ঘ্রাণের মত অবিচ্ছেদ্য এক নাম, শহরবাসীর প্রতি অনুরোধ থাকবে মাঠটিকে যত্ন নিতে, মাঠটির পরিবেশ রক্ষায় এখানে ময়লা আবর্জনা না ফেলে বরং পরিচ্ছন রাখতে সহযোগিতা করতে, এই মাঠ বাচলে বাচবে শহর, বাড়বে সুনাম, শহর পাবে সবুজে ঘেরা এক ঐতিহ্যের ঘ্রাণ।