ভালুকায় প্রশাসনের নির্দেশ অমান্য করে বিবাহ, মোবাইল কোর্টে জরিমানা

ভালুকায় প্রশাসনের নির্দেশ অমান্য করে বিবাহ, মোবাইল কোর্টে জরিমানা

নিজস্ব প্রতিনিধি, ত্রিশাল প্রতিদিন:: ময়মনসিংহের ভালুকায় ভয়াবহ প্রাণঘাতি করোনার দিনগুলোতে প্রশাসনের নির্দেশ অমান্য করে আত্বীয় স্বজনদের দাওয়াত দিয়ে বিবাহ আয়োজন করায় উপজেলা সহকারী কমিশণার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রোমেন শর্মার নেতৃত্বে একটি মোবাইল কোর্ট বর ও কাজীকে অর্থদণ্ড করেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে আজ ২৬ মার্চ বৃহস্পতিবার উপজেলার উথুরা ইউনিয়নের ধলিকুঁড়ি গ্রামে। প্রশাসনের নির্দেশ অমান্য করে গন জমায়েত করোনা ঝুকিপূর্ন জেনেও ১০০-১৫০ জনের দাওয়াতি মেহমান নিয়ে বিবাহ আয়োজন করে কনের পিতা। যাহা বর্তমানে করোনার দিনগুলোতে সম্পূর্ণ নিষেধ।

আজ ২৬ মার্চ গোপনসংবাদের ভিত্তিতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রোমেন শর্মার নেতৃত্বে প্রশাসন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বরকে ৫০০ টাকা ও নিকাহ্ রেজিষ্টি কাজীকে ১০,০০০ হাজার অর্থদণ্ড করে প্রাথমিকভাবে সতর্ক করে দেয়। উল্লেখ্য গত ২৪ মার্চ দেশের বর্তমান সংকটময় পরিস্থিতিতে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সকল ধরনের সামাজিক,রাজনীতিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানসহ গনজমায়েত সম্পূর্ণ নিষেধ করে উপজেলা প্রশাসন।

ভালুকা উপজেলা সহকারী কমিশণার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রোমেন শর্মা ত্রিশাল প্রতিদিনকে বলেন, গোপনসংবাদে উপজেলা প্রশাসন জানতে পারে উথুরা ইউনিয়নের ধলিকুঁড়ি গ্রামে সরকারি নির্দেশ অমান্য করে দুইজন তরুন তরুনীর বিবাহ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে পাড়া-প্রতিবেশি আত্নীয়-স্বজন মিলে ১০০-১৫০ মানুষের জমায়েত হয়েছে!

যাহাতে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঝুকিপূর্ন হওয়াতে উপজেলা প্রশাসন এক দিকে আইন,একদিকে সামাজিক বাস্তবতা! আবার মানুষের সামাজিক সচেতনতা তৈরি হওয়াটাও জরুরি জেনে সব দিক বিবেচনা করে বরকে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ৫০০ টাকা আর কাজীকে ১০,০০০ হাজার টাকা জরিমানা করে বিবাহ সম্পূর্ণ করা হয়।

তিনি আরো বলেন, উপস্থিত সকল মানুষকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে প্রশাসনের সকল নির্দেশ মেনে গনজমায়েত এরিয়ে নিজের ভালো,পরিবারের সুরক্ষা ও দেশের মানুষের মঙ্গলের জন্য হোম কোয়ারেন্টাইন মেনে চলা জরুরী বলে অবহিত করা হয়।