বাচ্চুহীন এলআরবির যাত্রা শুরু

কিংবদন্তী ব্যান্ডশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর হাতে গড়া ব্যান্ড এলআরবি নাম নিয়ে জটিলতার অবসান হয়েছে। আইয়ুব বাচ্চুর পরিবারের সদস্যদের আপত্তির মুখে এলআরবি’র সদস্যরা বালামকে নিয়ে ‘বালাম এন্ড দ্য লিগ্যাসি’ নামে যাত্রা শুরুর ঘোষণা দিলেও শেষপর্যন্ত নাম নিয়ে সমঝোতা হয়েছে। এলআরবি নামেই এগিয়ে যাবে ব্যান্ডের সদস্যরা ও বালাম , এটি নিশ্চিত করেছেন ব্যান্ডের মুখপাত্র শামীম আহমেদ।

গত অক্টোবরে আকস্মিকভাবে এলআরবির স্থপতি আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুর পর এলআরবির ভবিষ্যত নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়ে দলটির অন্যসদস্যরা। পরে প্রধান ভোকাল হিসেবে বালামকে তার অন্তভুক্ত করলেও ‘এলআরবি’ নামটি ব্যবহার নিয়ে আপত্তি তোলে আইয়ুব বাচ্চুর পরিবার। কিন্তু জনপ্রিয় ব্যান্ড এলআরবি’র হারিয়ে যাওয়া মানতে পারছিলেন না ভক্তরা। এ নিয়ে ভক্তদের রোষানলে পড়েন আইয়ুব বাচ্চুর পরিবারও। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তারা ভক্তদের কাছ থেকে হুমকিও পান।

সবদিক বিশ্লেষণ করে পারবারিক সিদ্ধান্ত পাল্টে পরিবারের সিদ্ধান্ত বদলে ব্যান্ডসদস্যদের ঘরে ফেরার আহ্বান জানান আইয়ুব বাচ্চুর সন্তান ও ব্যান্ডের উত্তরাধিকার আহনাফ তাজোয়ার।

এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক স্ট্যাটাসে তিনি লিখেন, এলআরবি অথবা বালাম অ্যান্ড দ্য লিগ্যাসি (তারা এখন এই নামে গান করতে চাইছেন) সদস্যদের বলতে চাই, তারা চাইলে ‘এলআরবি’ নামে গান করতে পারেন। এ নিয়ে আমাদের কোনও বাধা নেই। প্রাথমিকভাবে (গত ৫ এপ্রিল) তারা যেভাবে ‘এলআরবি’ নামে গান করতে চেয়েছিলেন, সেভাবেই গান-বাজনা চালিয়ে যেতে পারেন। তাদের জন্য শুভকামনা রইলো। আশা করি, তারা সফল হবেন ও বাবার সংগীতকে নিয়ে এগিয়ে যাবেন। আমার চাওয়া, এলআরবি সব সাফল্য অর্জন করবে।

তার আহ্বানে সাড়া দিয়েই নতুন নামের ব্যান্ড নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত থেকে সরে এলো ব্যান্ড সদস্যরা।

প্রসঙ্গত, আইয়ুব বাচ্চুর হাত ধরে ১৯৯১ সালের ৫ এপ্রিল প্রতিষ্ঠিত হয় ‘এলআরবি’। ব্যান্ডটির বর্তমান লাইন আপ-

বালাম জাহাঙ্গীর / ভোকাল ও রিদম গীটার (২০১৯—বর্তমান)

সাঈদুল হাসান স্বপন / বেজ গীটার (১৯৯১—বর্তমান)

আব্দুল্লাবাহ আল মাসুদ / লীড গীটার (২০০৩—বর্তমান)

গোলাম উর রহমান রোমেল / ড্রামস (২০০৬—বর্তমান)।