দেখুন নিউজিল্যান্ডের ভয়ঙ্কর দুপুর!

 

শ্রাবণ আহমেদ:: কালো পোশাকধারী মাত্র ১০ মিনিটে স্তব্ধ করে দিয়েছেন শান্ত দেশ নিউজিল্যান্ডকে। ১৫ মার্চ স্থানীয় সময় বেলা দেড়টার দিকে জুম্মার নামাজ পড়ার ঠিক আগ মুহূর্তে নামাজ পড়ায় ব্যস্ত মুসল্লিদের উপর অতর্কিত গুলি চালাতে থাকে কালো পোশাকধারী ওই ব্যক্তি। ইতোমধ্যে নেট দুনিয়ায় প্রকাশ পেয়েছে গুলি চালানোর সময়ের কিছু ভিডিও। ভিডিওতে দেখা গেছে কালো পোশাকধারী ওই ব্যক্তি মাথায় ক্যামেরা সংযুক্ত হেলমেট পরে মেশিন গান হাতে নিয়ে গাড়ি থেকে নেমে মসজিদের দিকে দ্রুত গতিতে ছুটে যান।
ঘটনার পর পুরো এলাকায় অবস্থান নিয়েছে পুলিশ ।    ছবি: রয়টার্স

মসজিদে ঢুকে গেমস স্টাইলে গুলি চালাতে থাকে নিরীহ মুসল্লিদের উপর। যাকে দেখেছেন তাকেই গুলি করে রক্তাক্ত করেছেন। ঠিক সেই মুহূর্তে জুম্মার নামাজ আদায় করতে যান নিউজিল্যান্ডে সফররত বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের তিন সদস্য তামিম, মিরাজ ও তাইজুল ইসলাম। আচমকা মসজিদে ঢুকার মুখেই তারা দেখতে পান রক্তাক্ত শরীরে বেরিয়ে আসছেন এক মহিলা। তিনি তখন তামিম ইকবালদের বলেন, ‘ভেতরে যেও না, ভেতরে গোলাগুলি।’ তামিমসহ অন্যান্যরা হতভম্ব হয়ে যান।

সতর্ক অবস্থায় রয়েছে পুলিশ। ছবি: রয়টার্স

ক্রিকেটাররা উপায় দেখতে না পেয়ে বাসে উঠে বসে থাকেন। স্থানীয় পুলিশ ততক্ষণে বন্ধ করে দিয়েছেন সমস্ত রাস্তা। তারপর অবস্থা কিছুটা ঠাণ্ডা হলে বাস থেকে নেমে হেঁটেই হোটেলে চলে যান ক্রিকেটাররা। এ সময় তামিম, মুশফিক ভীষণ আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। ক্রিকেটারদের সঙ্গে ছিলেন বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার খালেদ মাসুদ পাইলটও। বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের সবাই নিরাপদে আছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

ইতোমধ্যে ওই হামলায় অন্তত চল্লিশজন নিহত হওয়ার খবর জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম। তার মধ্যে বাংলাদেশি রয়েছে দুই জন। আহত হয়েছেন একজন। এই সংখ্যা বাড়তে পারে বলেও জানিয়েছে নিউজিল্যান্ড পুলিশ।

সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে পুলিশ। ছবি: রয়টার্স
ঘটনাস্থলে পড়ে রয়েছে মুসল্লিদের জুতা, রক্তমাখা ব্যান্ডেজ। ছবি: রয়টার্স
আহত একজনকে হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে। ছবি: রয়টার্স
উদ্বিগ্ন স্বজন, বসে পড়েছেন ফুটপাতেই। ছবি: রয়টার্স
উদ্বিগ্ন স্বজনেরা। ছবি: রয়টার্স
আজকের পত্রিকা