ত্রিশালে কুরবানির পশু কিনতে অনলাইনে ঝুকছে ক্রেতা বিক্রেতারা

শামিম ইশতিয়াক, ত্রিশালঃ আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহা কে সামনে রেখে ইতিমধ্যে শুরু হওয়ার কথা কুরবানির পশুর হাট কিন্তু করোনা সংক্রমণের ভয় এবং ঝুকি এড়াতে যা এখনো হয়ে উঠেনি চাঙ্গা, এই অবস্থায় কুরবানি পশু ক্রয় বিক্রয়ে সবাই ঝুকছে অনলাইনে, ত্রিশালেও নেই তার ব্যাতিক্রম, ইতিমধ্যে সামাজিক মাধ্যম সহ অনলানের বিভিন্ন প্লাটফর্মে চলছে বেচাকেনা, ত্রিশালের ফেইসবুক গ্রুপ ত্রিশাল হেল্পলাইন সহ বিভিন্ন গ্রুপে চলছে বেচাকেনা।

বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে ঈদের আমেজের সাথে কুরবানির পশু ক্রয়ের আমেজে ভাটা পরলেও ত্রিশালে ব্যতিক্রম ছিলো আগেকার অবস্থা, ত্রিশালের সুপরিচিত গো-হাটা মাঠ সহ ত্রিশাল বাজারের আশেপাশে জমতো কুরবানি পশুর বিশাল হাট, দূরদুরান্ত থেকে ক্রেতা বিক্রেতারা ছুটে আসতো পছন্দের পশু ক্রয় বিক্রয়ে, ত্রিশালের বালিরবাজার, রাগামারা, পোড়াবাড়ি, বালিপাড়া, ধানিখোলা বাজারে জমতো বিশাট হাট কিন্তু অদৃশ্য জীবানূ ভয়ে এবার তার উল্টো চিত্রে অপেক্ষায় ত্রিশালবাসী।

অনলাইনে পশু ক্রয়ে ঘরে বসে পশুপ্রাপ্তীর সুবিধা থাকলেও দেখা যাচ্ছে অসংখ্য অসুবিধা, যাচাই-বাছাই করতে পারছেনা ক্রেতারা, এদিকে বিক্রেতা শ্রেণীও আকর্ষণীয় করে তুলতে পারছেনা পশু, অবশ্য অনলাইনে আকর্ষণীয় বিজ্ঞাপন ও ঈদের আগের দিন অবধী পশু নিজের কাছে রাখার অফার ও দিচ্ছে অনেক বিক্রেতারা, তবুও যেনো আশার আলো মিলছেনা নিজেদের ব্যাবসায়।
এই ব্যাপারে ত্রিশালের গরুর পাইকার মোস্তফা আলী বলেন ” সব সময় গরু নিয়ে আসতাম, বিক্রি হতো ভালো এবার জানিনা কি হতে যাচ্ছে, বিক্রি-বাট্টা তে এমন সময় আসবে তা কখনো ভাবিনি”

ক্রেতা মহলেও দেখা মিলছে হতাশা, সঠিক পশু বাছাইয়ে তারা ভুগছে নানান জটিলতায় ক্রেতা মাহমুদুল হাসান হৃদয় বলেন “ছবিতে দেখে ভরসা পাচ্ছিনা, বাস্তবে কেনা এবং হাটে যাওয়ার আনন্দটাও মিস করছি”

সুস্থ ধরণীর অপেক্ষায় নিজেদের সুরক্ষার কথা ভেবে হলেও এমন পদ্ধতিকেই সহজে মেনে নিচ্চজে সবাই, মুসলিম উম্মাহর এই উৎসবে যেনো একটি আনন্দ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সবাই, তবুও অনলাইনই শেষ ভরসা হয়ে উঠছে সবার কাছে।