ত্রিশালের হরিরামপুরে ত্রান, শাড়ী লুঙ্গি ও অর্থ বিতরণ

ত্রিশালের হরিরামপুরে ত্রান,শাড়ী লুঙ্গি ও অর্থ বিতরণ

রাকিবুল হাসান ফরহাদ:: করোনা সংকটে স্থবির জনজীবনে বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়ে হরিরামপুরের বিপন্ন মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে ত্রিশাল উপজেলা প্রশাসন, ইউনিয়ন পরিষদ ও সিঙ্গাপুর প্রবাসী এনায়েত কবীর। ত্রিশাল উপজেলার হরিরামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সাঈদের সুযোগ্য পুত্র সিঙ্গাপুর প্রবাসী এনায়েত কবির তার পক্ষ থেকে ইউনিয়নে ত্রাণ বিতরণ থেকে শুরু করে স্বাস্থ্যসেবায় অসহায়ের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। এনায়েত দেশের বাহিরে থাকলেও এনায়েত কবিরের আস্থাভাজন নিকটাত্মীয়রা তার পক্ষ থেকে অভাবী মানুষকে বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতা করছেন।

করোনার প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর থেকেই মাঠে হরিরামপুর ইউনিয়নের মানুষের পাশে রয়েছে উপজেলা প্রশাসন, হরিরামপুরের মানবিক চেয়ারম্যান ও জনবান্ধব জনপ্রতিনিধি আবু সাঈদ। একই সাথে তার প্রবাসী পুত্র এনায়েত কবীরও গরীবদের সহযোগিতা করে বাবার সহযোদ্ধা হিসাবে পাশে দাড়িয়েছেন। এনায়েত ব্যক্তিগত উদ্যোগে প্রতিদিন ‘মানবিক সহায়তা’ পৌছে দিচ্ছেন সংকটে পড়া মানুষের কাছে। রমজান মাসে দিনে দুস্থ অসহায়দের এাণ এবং সন্ধায় অসহায়দের বাড়ী-বাড়ী ঘুরে মানুষের হাতে ইফতার তুলে দেওয়ার সাথে সাথে চেয়ারম্যান সাঈদ ছেলের দেওয়া ত্রাণ ও ইফতার সামগ্রীও পৌছে দিচ্ছেন কর্মীদের ঘরে ঘরে।

এ পর্যন্ত প্রায় ৩ হাজারের বেশি পরিবারের কাছে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেওয়ার পর এই প্রবাসী ঈদকে সামনে রেখে ইউনিয়নের ১০৪ গরীব মানুষদের জন্য শাড়ী-লুঙ্গী ও নগদ অর্থ দেওয়ার ব্যবস্থা করলে তার এই উপহারের সাথে যুক্ত করে ঈদ উপহার হিসাবে চাল,আলু,ডাল পেয়াজ সহ বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী বিতরন করেন উপজেলা প্রশাসন ও ইউনিশন পরিষদ। এতে ১০৪জন কর্মহীন গরীব ঈদ উপলক্ষে এনায়েতের দেওয়া শাড়ী লুঙ্গির সাথে চাল, আলুসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিষ পত্রাদি সাথে পেয়ে আনন্দে মেতে উঠেন।

এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান, সহকারী কমিশনার ভূমি এসিল্যান্ড তরিকুল ইসলাম,ইউপি চেয়ারম্যান আবু সাইদ, ত্রিশাল উপজেলা শাখার পাওয়ার আইটির পরিচালক হিমেল খন্দকার। সহ ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার ও ইউনিয়নের রাজনৈতিক সামাজিক ও বিভিন্ন পেশাশ্রেণীর ব্যক্তি বর্গরা উপস্থিত ছিলেন।