ত্রিশালের সাবেক শিক্ষা অফিসার আব্দুল খালেক খাঁন আর নেই 

এস.এম জামাল উদ্দিন শামীম, ময়মনসিংহঃ ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার মোক্ষপুর ইউনিয়নের  সানকিভাঙ্গা  গ্রামের গুনি ব্যাক্তি সাবেক সহকারী থানা শিক্ষা অফিসার ও  বিশিষ্ট সাংবাদিক নেতা ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাবেক সাধারণ সম্পাদক কবির আহমেদ খানের পিতা আব্দুল খালেক খাঁন ইন্তেকাল করেছেন।(ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

শনিবার (৩ অক্টোবর) রাজধানীর শহিদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১০টায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯০ বছর। বার্ধ্যক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলে তিনি।

জানা গেছে, শুক্রবার রাতে আব্দুল খালেকের অবস্থার অবনতি হলে বাসায় চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে অবস্থার আরও অবনতি হলে শনিবার সকালে রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে রাত ১০টায় সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। আব্দুল খালেক সহকারী থানা শিক্ষা অফিসার হিসাবে ১৯৯৩ সালে অবসরে গিয়েছিলেন।

মৃত্যুকালে স্ত্রী, সাত ছেলে ও তিন মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন আব্দুল খালেক। সবার বড় ছেলে ড. শামসুজ্জামান খান সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক। দ্বিতীয় ছেলে ড. কামরুজ্জামান খান বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি)। তার অন্যান্য সন্তানেরাও নিজ নিজ ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত।