ত্রিশালে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে ব্যস্ত মেয়র আনিছুজ্জামান

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে
করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে এবিএম আনিছুজ্জামান

ফকরুদ্দীনঃ ময়মনসিংহের ত্রিশাল পৌরসভার জনপ্রিয় জননেতা লাখো মানুষের আত্মার আত্মীয়, দু’বারের সফল মেয়র, সাবেক উপজেলা যুবলীগের সফল সভাপতি, মুজিব আদর্শের আইকন, উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা, জননেতা এবিএম আনিছুজ্জামান (আনিছ)২২ মার্চ সকালে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে জনগনকে হাত ধুয়ে মাস্ক পড়িয়ে ব্যাপক প্রচারণা চালিয়েছেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সমস্যায় নভেল করোনার তান্ডবে উন্নত রাষ্ট্রগুলোতে যখন হাজার হাজার মানুষের প্রাণ কেড়ে নিচ্ছে, এশিয়ার দেশ গুলোতেও ছড়াচ্ছে এই নভেল করোনা ভাইরাস, তার মাঝে বাংলাদেশেও প্রবাসীদের দেশে ফেরার মধ্যদিয়ে ঘাটি করতে শুরু করেছে ভাইরাসটি। এক এক করে সনাক্ত রোগীর সংখ্যা যখন বাড়ছে, বাংলাদেশ সরকার করোনা প্রতিরোধে বিভিন্ন পদক্ষেপ কর্মসূচীর ঘোষণা দিয়েছেন। এই কর্মসূচীর অংশ হিসেবে এবং নিজের দায়িত্ববোধ থেকে দেশকে ভালোবেসে, দেশের মানুষকে ভালোবেসে সবাইকে মরণ নামক করোনার সংক্রমণ বিস্তার থেকে রক্ষা পেতে বিভিন্ন প্রচার মাধ্যম, পৌরশহরের হাঠ বাজার, বিভিন্ন শ্রেণী -পেশার মানুষদের মধ্যে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে মাঠে কাজ করে চলছেন পৌর মেয়র আনিছুজ্জামান।

পৌরসভার সকল কাউন্সিলরদের সাথে নিয়ে পৌরশহরের হাঠ বাজার হাত ধুয়ার জন্য জন সমাগম মোড়ে মোড়ে সাবান ও পানির ব্যবস্থা করেন এবং হাত ধুয়ার গুরুত্ব বিষয়ে গুরুত্ব ও সচেতন হওয়ার জন্য বাজারে সাধারণ জনতাকে হাত ধুয়ে মুখে মাস্ক পড়িয়ে দেন এবং পরামর্শ দেন যাতে সকলেই বার বার সাবান ব্যবহার করে হাত ভালো ভাবে ধুয়ে নেয়।

এছাড়া পৌর এলাকায় মাইকিং প্রচারের মাধ্যমে সন্ধ্যা ৭টা থেকে চা স্টল থেকে শুরু করে সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন। মেয়র করোনা বিষয়ে ত্রিশাল পৌর এলাকার বাহিরে প্রতি ইউনিয়ন ওয়ার্ড গুলোতে দলীয় নেতা কর্মীদের সচেতনতায় প্রচার চালিয়ে যাওয়ার আহবান জানিয়েছেন। বিদেশ ফেরত প্রবাসীদের উদ্ধেশ্যে মেয়র আনিছুজ্জামান বলেন, আপনার অসর্তকতা জনগনের দুর্ভোগের কারণ হতে পারে। আপনে যদি ১৪দিনের আগে দেশে ফিরে থাকেন, তাহলে সরকারের নির্দেশ মেনে চলুন।