আরেক জেনারেলকে হত্যার চেষ্টা ব্যর্থ যুক্তরাষ্ট্রের

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃগত ৩ জানুয়ারি ভোরে ইরাকের রাজধানী বাগদাদের বিমানবন্দরের কাছে ড্রোন হামলায় কাসেম সোলেইমানিকে হত্যা করে যুক্তরাষ্ট্র। ওই হামলায় একইসঙ্গে নিহত হন ইরাকের শিয়া মিলিশিয়া গ্রুপের নেতাসহ আরও নয়জন। সোলেইমানিকে হত্যার জন্য সরাসরি নির্দেশ দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এরপর থেকে মধ্যপ্রাচ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

উত্তেজনা বিরাজমান অবস্থায় আরও একটি খবর যেন আগুনে তেল ঢেলে দেয়ার মত অবস্থা।আসলে ঘটনাটি কতটা সত্য তা নিশ্চিত করে বলতে পারছেনা মাধ্যম গুলো।এর মধ্যে মধ্যপ্রাচ্যের অস্থরতা থামাতে ট্রাম্প নানা রকম প্রস্তাব দিয়ে আসছে।কিন্তু ইরান তার অবস্থানে অনড়।

ইরানের জেনারেল কাসেম সোলেইমানিকে হত্যার দিন দেশটির আরেক শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তাকে ইয়েমেনে হত্যার চেষ্টা করেছিল যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু ইয়েমেনে সেই জেনারেলকে হত্যা করতে ব্যর্থ হয়।

ওই ঘটনার সঙ্গে জড়িত দুই মার্কিন দুই কর্মকর্তার বরাত দিয়ে দেশটির গণমাধ্যম সিএনএন’র এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

তবে মার্কিন ওই দুই কর্মকর্তা সেদিনের অভিযান সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানাননি। আরেক মার্কিন সামরিক কর্মকর্তা বলেন, ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ডের অভিজাত বাহিনী কুদস ফোর্সের কমান্ডার সোলেইমানিকে হত্যা ছাড়া ওই রাতে আর বড় ধরনের কোনো অপারেশন চালানো হয়নি।

মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দপ্তর পেন্টাগনের মুখপাত্র রেবেকা রেবারিখ সিএনএন’কে বলেন, তিনি ইয়েমেনে মার্কিন অভিযানের প্রতিবেদন দেখেছেন।’ কিন্তু ওই অভিযানের সত্যতা কিংবা তা নিয়ে বিস্তারিত কোনো তথ্য জানাতে অস্বীকৃতি জানান তিনি।