আজ বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ

বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ
বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ

বছরের প্রথম বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ ঘটবে আজ (২১ জুন)।কঙ্গো, লাইবেরিয়া, ইথিওপিয়া, পাকিস্তান, ভারত ও চীন থেকে বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে। তবে বাংলাদেশসহ বিশ্বের অনেক দেশেই আজ আংশিক সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের সহকারী আবহাওয়াবিদ রোনাকী খন্দকার জানান, বাংলাদেশে সূর্যগ্রহণ শুরু হবে বেলা ১১টা ১৭ মিনিটে। আকাশ পরিষ্কার থাকলে দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে আংশিক সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে। তিনি জানান, রাজশাহী ও রংপুরে বেলা ১১টা ১৭ মিনিটে, খুলনায় বেলা ১১টা ২০ মিনিটে, ঢাকা ময়মনসিংহ ও বরিশাল বিভাগে বেলা ১১টা ২৩ মিনিটে, সিলেটে বেলা ১১টা ২৭ মিনিটে এবং চট্টগ্রামে বেলা ১১টা ২৮ মিনিটে সূর্যগ্রহণ শুরু হবে। সূর্যগ্রহণ শেষ হবে দুপুর ২টা ৪৮ মিনিট থেকে ৫৫ মিনিটের মধ্যে।

খালি চোখে সুর্যের দিকে তাকালে এতে চোখের মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে। উপযুক্ত সোলার ফিল্টার বা ১৩ গ্রেডের ওয়েল্ডিং গ্লাস ব্যবহার করে এই গ্রহণ পর্যবেক্ষণ করা যাবে। টেলিস্কোপ, বাইনোকুলার বা ক্যামেরা সরাসরি সুর্যের দিকে তাক করে গ্রহণ পর্যবেক্ষণ বা ছবি তোলা চোখের মারাত্মক ক্ষতির কারণ হবে। সোলার ফিল্টার সংযুক্ত করে এই গ্রহণ দেখা যাবে ও ছবি তোলা যাবে।

জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী জানান, করোনা সংক্রমণের কারণে এবার জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরে কোন পর্যবেক্ষণ ক্যাম্প আয়োজন করা হবে না। তবে প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের জন্য সীমিত পরিসরে গ্রহণ পর্যবেক্ষণের আয়োজন করা হয়েছে।

বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে সূর্যগ্রহণ শুরু হবে রোববার সকাল ৯টা ৪৬ মিনিট ৬ সেকেন্ডে।

কঙ্গো প্রজাতন্ত্রের ইম্পফোন্ডো শহরে সকাল ৯টা ৪৬ মিনিটে, কঙ্গোর বোমা শহরে সকাল ১০টা ৪৮ মিনিটে সূর্যগ্রহণ শুরু হবে। সর্বোচ্চ গ্রহণ দেখা যাবে ভারতের যোশীমঠ শহরে বেলা ১২টা ৪০ মিনিটে।

ফিলিপিন্সের সামার শহরে দুপুর ২টা ৩১ মিনিটে এবং মিন্দানাও শহরে বেলা ৩টায় ৩৪ মিনিটে সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে।

উল্লেখ্য, ঢাকায় পরবর্তী সুর্যগ্রহণ দেখা যাবে ২৫ অক্টোবর ২০২২ সালে।